Header Ads

প্লাস্টিকের চাল এবং প্লাস্টিকের ডিম : কিছু কথন

বাজারে গিয়ে কিনে আনলেন মিনিকেট বা ভালো বাঁশকাটি চাল। হাঁড়িতে সে ভাত ফুটল,কিন্তু জানলেন না আপনি যে চালের ভাত খেলেন সেটা আসল কৃত্রিম চাল যা প্লাস্টিক ছাড়া কিছুই নয়। এমন খবর আমাদের প্রায়ই শুনতে হয়। প্লাস্টিকের ডিম বাজারে আছে এটা তো নিত্যদিনের খবর। তাই প্লাস্টিক নিয়েই আজকের গল্প।

প্রথমত আমাদের ভাত রান্না করার জন্য তা পানিতে ফোটাতে হয়, পানির স্ফুটনাঙ্ক 100 ডিগ্রী সেলসিয়াস। আমাদের বাজারে যে সকল পাস্টিক পাওয়া যায় তাদের স্ফুটনাঙ্ক বিভিন্ন।যেমন পিভিসি প্লাস্টিক গলে 160 ডিগ্রি থেকে 210 ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায়। আমরা জানি পানির স্ফুটনাঙ্ক 100 ডিগ্রী তাপমাত্রার উপরে নেয়া সম্বব নয়। সুতরাং আপনি যদি বাজার থেকে প্লাস্টিকের চাল কিনে আনেন সেটা কখনোই পানি দ্বারা ফুটানো সম্ভব হবে না।

দ্বিতীয় বিষয় -প্লাস্টিক গলানো হলে সেটা তরলে রূপান্তরিত হয় অথবা তার আকার আকৃতির পরিবর্তন হয়ে যায়। পিভিসি ছাড়া অন্যান্য প্লাস্টিক যেমন পলিপ্রোপিন এর গলনাঙ্ক প্রায় 200 থেকে 280 ডিগ্রি সেলসিয়াস। সুতরাং পানি বা তেলের মধ্যে প্লাস্টিক ফুটানো কখনোই সম্ভব হচ্ছে না ।

কৃত্রিম ডিমের ক্ষেত্রে, ডিমের শেল প্যারাফিন, জিপসাম গুড়া, ক্যালসিয়াম কার্বনেট, এবং অন্যান্য উপকরণ দ্বারা তৈরি করা যেতে পারে। ডিমের সাদা অংশ তৈরীর ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যেতে পারে কেলসিয়াম আলজেনাইট দ্বারা । সুতরাং এটা পরিষ্কার কৃত্রিম ডিম তৈরি করার জন্য অনেকগুলো রাসায়নিক এর প্রয়োজন এবং রাসায়নিক গুলোর সঠিক অনুপাত জরুরি। বাজারে আমরা যে দামে ডিম পায়, এই দামের মধ্যে কখনোই কৃত্রিম ডিম তৈরি সম্ভব না। পাশাপাশি খাবারের সময় ডিম ওমলেট বা সিদ্ধ করলে যে স্বাভাবিক আকার আকৃতি হওয়ার কথা প্লাস্টিকের ডিম এ সেটা কখনোই হবে না। আগেই বলেছি ,পানিতে প্লাস্টিক সিদ্ধ হয় না। প্রয়োজনে আপনিও পরীক্ষা টি করে দেখতে পারেন। সুতরাং প্লাস্টিকের ডিম কিংবা প্লাস্টিকের চাল এসব গুজবে আমাদের কান না দেওয়াই উত্তম।

– Nur E Alam

The post প্লাস্টিকের চাল এবং প্লাস্টিকের ডিম : কিছু কথন appeared first on ইসলামিক অনলাইন মিডিয়া.



from ইসলামিক অনলাইন মিডিয়া http://bit.ly/2DoJLGm

No comments

Powered by Blogger.