Header Ads

একুশের বইমেলায় কেন ইসলামী বই প্রকাশকদের স্টল দেয়া হয়না?

একুশের বইমেলার একটা স্যেক্যুলার বদমায়েশি হচ্ছে, মেলায় ইসলামী বইয়ের প্রকাশকদের স্টল না দেয়া। ২০০০ সালের দিকেও বইমেলায় ইসলামী বই প্রকাশকদের স্টল থাকতো। ইসলামী বইয়ের প্রকাশকেরা স্টল পাবার সকল শর্ত পূরণ করলেও তাঁদের নানা বাহানায় এখন স্টল দেয়া হয়না।

অথচ দেখুন কোলকাতা বইমেলাতে রিলিজিয়াস বইয়ের অনেক স্টল থাকে। বাঙলায় হিন্দু ধর্মের বইয়ের বরেণ্য প্রকাশক গীতা প্রেসের স্টল থেকে কোলকাতা বইমেলায় আমি নিজেই বই কিনেছি অনেক। গীতা প্রেসের স্টলটা আনন্দ পাব্লিশার্সের চাইতে ছোট ছিলনা। রামকৃষ্ণ মিশনের স্টল থেকেও বই কিনেছি। শ্রী চৈতন্যের অচিন্ত্য ভেদাভেদ তত্ত্বের উপরে একটা অমুল্য বই আমি হঠাৎ ই খুঁজে পাই কোলকাতা বইমেলার ধর্মীয় বইয়ের একটা স্টলে।

তাহলে আমাদের ঢাকার স্যেকুলারেরা ইসলামী প্রকাশকদের বিষয়ে এতো স্পর্শকাতর কেন? তারা কি কোলকাতার দাদাদের চাইতে অধিক স্যেকুলার? বাঙলা একাডেমী কি স্যেকুলারদের একার, নাকি এটা রাষ্ট্রের সকল নাগরিকদের প্রতিষ্ঠান?

আমি গতকাল লিখেছিলাম, এই মেলা তার অন্তিম সময়ে পৌছেছে। কেউ যাচ্ছেনা, গেলেও বই কিনছেনা। জাফর ইকবাল হতাশ হয়ে লিখেছেন, মেলায় আসা লোকেদের হাতে বইয়ের চাইতে স্মার্ট ফোন বেশী। যদি স্যেকুলারিজমের মোড়কে বইমেলা ইসলামী বই প্রকাশকদের প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ বন্ধ না করে, তবে গতবার পহেলা বৈশাখকে প্রত্যাখ্যান করে দেশের মানুষ যে বার্তা দিয়েছে, সেই একই বার্তা পাবে একুশের বইমেলা। বিভাজনের ভ্রান্ত রাজনীতিকেই উর্ধে তুলে ধরা বইমেলার কর্তব্য নয়। এই ভ্রান্ত বিভাজনের পথ পরিত্যাগ করুন। নয়তো, সারা বাংলাদেশের তালুকদারি তো গেছেই, টি এস সি থেকে শাহবাগ পর্যন্ত স্যেকুলার তালুকদারি যেতে সময় লাগবেনা।

পিনাকী ভট্টাচার্য

The post একুশের বইমেলায় কেন ইসলামী বই প্রকাশকদের স্টল দেয়া হয়না? appeared first on ইসলামিক অনলাইন মিডিয়া.



from ইসলামিক অনলাইন মিডিয়া http://bit.ly/2DQgiqj

No comments

Powered by Blogger.